Tue. Dec 18th, 2018

জাভা প্রোগ্রামিং ভাষার পরিচিতি ও ইতিবৃত্ত

জাভা কি ?

আমাদের মানুষদের যেমন কথা বলা কিংবা মনের ভাব প্রকাশ করার জন্য ভাষা রয়েছে  ঠিক তেমনি  কম্পিউটারের ও ভাষা রয়েছে । জাভা হল একটি উচ্চস্তরের কম্পিউটার প্রোগ্রামিং ভাষা যার মাদ্ধমে কম্পিউটারকে প্রোগ্রাম করা হয় । প্রোগ্রামিং ভাষার মদ্ধেও  আবার রকমফের আছে যেমন Functional Programming , Object Oriented Programming ইত্যাদি । জাভা হচ্ছে একটি পিউর অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড কম্পিউটার প্রোগ্রামিং ভাষা যা কিনা শুধুমাত্র অবজেক্ট এবং ক্লাস নিয়ে কাজ করে তবে জাভা ৮.০ ভার্সনে ফাংশনাল প্রোগ্রামিং সুবিধা দেয়া হয়েছে । জাভা একাধারে প্রোগ্রামিং ভাষা এবং একটি স্বতন্ত্র  প্লাটফর্ম । জাভা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের মুল স্লোগান হচ্ছে “Write Once Run Everywhere” অর্থাৎ “একবার লিখুন যেকোনো জায়গায় চালান” । জাভা একটি প্লাটফর্ম  ইনডিপন্ডেন্ট ভাষা – এর মানে হল জাভা প্রোগ্রাম চালানোর জন্য কোন নির্দিষ্ট কোন প্লাটফর্মের প্রয়োজন পরে না । জাভার নিজস্ব প্লাটফর্ম আছে যেটাকে বলা হয় JVM (Java Virtual Machine) । এই JVM মূলত জাভা প্রোগ্রাম কে একটা Environment প্রদান করে যাকে বলা হয় JRE (Java Runtime Environment) এবং এর উপরে নির্ভর করে জাভা প্রোগ্রাম রান করে । জাভা প্রোগ্রামিং ভাষা তইরী করে যুক্তরাষ্ট্রের সান মাইক্রোসিস্টেম  কম্পানি  যাকে পরবর্তীতে ওরাকল কর্পোরেশন  কিনে নেয় ।

জাভার ইতিহাস

Java Programming Language

১৯৯১ সালের জুন মাসে সান মাইক্রোসিস্টেমে কর্মরত James GoslingMike SheridanPatrick Naughton প্রমুখ বেক্তিবর্গ  একসাথে টিম গঠন করেন যার নাম ছিল Green Team । এই টিমের অধীনেই মূলত জাভা তইরীর কাজ শুরু হয় । জাভা প্রোগ্রামিং ভাষা তইরীর প্রধান লক্ষ ছিল সি++ ল্যাঙ্গুয়েজের সমস্যা গুলাকে বাদ দিয়ে সম্পূর্ণ নতুন একটা ল্যাঙ্গুয়েজ বানানো যার মাদ্ধমে যেকোনো ডিভাইসকে প্রোগ্রাম করা যাবে । James Gosling ল্যাঙ্গুয়েজটির নামকরণ করেন C++ ++– অর্থাৎ C++  ল্যাঙ্গুয়েজ থেকে কিছু জিনিস বাদ দেয়া এবং নতুন জিনিস জোক করা । কিন্তু কিছুতেই যেন তাঁরা সফল হতে পারতেছিলেন না  কারণ  ছোট খাটো ডিভাইস গুলাতে মেমোরি এবং প্রসেসিং পাওয়ার দুটোই কম থাকে । অবশেষে James Gosling একটা যুগান্তকারী ধারনা নিয়ে হাজির হন সেটা হল ভার্চুয়াল মেশিন অর্থাৎ আমরা প্রোগ্রাম  লিখবো আর সেই  কোড Compile হয়ে এক ধরনের Intermediate Code জেনারেট করবে যাকেে JVM মেশিন কোডে  কনভার্ট করবে ।  James Gosling  পরবর্তীতে উনার অফিসের বাইরের ওক (Oak) নামের একটা গাছের নাম অনুসারে ল্যাঙ্গুয়েজটির নাম দেন Oak । কিন্তু তখন Oak Technologies নামে একটা কোম্পানি থাকায় সেই নামটিও বাদ দিয়ে দেয়া হয় । প্রস্তাবিত Java , DNA , Silk নামগুলুর মদ্ধে থেকে Java নামটিকে ঠিক করা হয় । অবশেষে ১৯৯৫ সালে জাভার প্রথম ভার্সন ১.০ রিলিস হয় ।

জাভার মূলনীতি

১. এটি হবে সরল, অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড এবং পরিচিত।

২. এটি হবে শক্তিশালী এবং সুরক্ষিত।

৩. এটি কোন নির্দিষ্ট প্লাটফর্মের উপর নির্ভর করবে না আর এর থাকবে বহনযোগ্যতা।

৪. এটি অনেক উচ্চ কার্যশীলতাসম্পন্ন হবে।

৫. এটি হবে ইন্টারপ্রিটেড, থ্রেডেড এবং ডাইনামিক।

জাভা কিভাবে কাজ করে ?

জাভাতে কোড সরাসরি মেশিন কোডে রূপান্তরিত হয় না । প্রথমে সোর্স কোড কম্পাইল হয়ে বাইট কোড জেনারেট করে এক  ধরনের ফাইল তৈরি করে যার এক্সটেনশন হচ্ছে .class । পরে এই .class ফাইল JVM Interpret করে মেশিন কোডে রূপান্তরিত করে ।

জাভার ব্যাবহার

   ১) ডেক্সটপ স্ট্যান্ডএলন এপ্লিকেশনঃ জাভা দিয়ে ডেক্সটপ স্ট্যান্ডএলন এপ্লিকেশন বানানো যায় । ডেক্সটপ বেস সফটওয়ার বানানোর জন্য অনেক ধরনের লাইব্রেরী আছে যেমন Swing Java , JavaFX , AWT ( Abstract Window Toolkit ) ইত্যাদি ।

   ২) ওয়েব এপ্লিকেশনঃ জাভা দিয়ে ওয়েেব এপ্লিকেশনও বানানো যায় । JSP , Servlet , Spring Framework  ইত্যাদি টুলস ব্যাবহার জাভাতে ওয়েব এপ্লিকেশন বানানো যায় ।

            ৩) এন্টারপ্রাইজ এপ্লিকেশনঃ জাভা দিয়ে এন্টারপ্রাইজ এপ্লিকেশন বানানো যায় । এন্টারপ্রাইজ এপ্লিকেশন এর মদ্ধে ব্যাংকিং এপ্লিকেশন , লোড                     বেলেঞ্চিং , হেভি ডাটাবেস ইত্যাদি কায জাভার মাদ্ধমে অনায়াসে করা যায়  ।

 ৩) মোবাইল এপ্লিকেশনঃ জাভা দিয়ে মোবাইল এপ্লিকেশন বানানো যায় । মোবাইল এপ্লিকেশনের মদ্ধে বর্তমানে Android Application সবচেয়ে জনপ্রিয় যা কিনা জাভা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়ে বানানো হয় ।

জাভা টুলস

জাভার অনেকগুলা IDE ( Integrated Development Environment ) এর মদ্ধে Eclipse IDE , Netbeans , IntelliJ IDEA  সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় ।

আজকের জন্য  এইখানেই শেষ । ভালো লাগলে শেয়ার করবেন । আল্লাহ হাফেয

Comments

comments

6 thoughts on “জাভা প্রোগ্রামিং ভাষার পরিচিতি ও ইতিবৃত্ত

  1. Asif, its really amazing to get the background info of java & hope to get a lot of tutorials and resources from you ! best wishes for your new journey. moreover waiting for upcoming blogs

  2. মাতৃভাষায় কম্পিউটার সায়েন্স এর রিসোর্স দিনে দিনে সমৃদ্ধ হচ্ছে। এটি একটি ভাল প্রয়াস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: